কিভাবে আপনি কম্পিউটারে কী-লগার (keylogger) খুঁজে পাবেন?

সাধারণত কি-লগারের মত স্পাইওয়্যারগুলো উইন্ডোজ ডিরেক্টরির একটি গোপন জায়গায় ১০০কিলোবাইটের বেশি জায়গা নিয়ে বিদ্যমান থাকে, তাই কোন ফাইলে আসলে কি-লগারটি থাকে তা খুঁজে বের করা বেশ কষ্টসাধ্য। যাইহোক নিচে একটি খুব সহজ পর্যায়ক্রমিক পদ্ধতির বর্ণনা করা হচ্ছে যার সাহায্যে যে কোন ধরনের স্পাইওয়্যার বা বিপজ্জনক ভাইরাস সনাক্ত করা সম্ভব হবে।

নোট: এই পদ্ধতিতে কম্পিউটারে একটি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ইন্সটল করা থাকতে হবে। আপনি যেকোনো ধরনের এন্টিভাইরাস ব্যবহার করতে পারেন।

 

ধাপ ১। স্টার্ট মেনুতে ক্লিক করে run খুঁজে তাতে ক্লিক করুন। msconfig টাইপ করে ok ক্লিক করুন।

pictures 1

একটি নতুন উইন্ডো ওপেন হবে, সেখানে startup ক্লিক করে উইন্ডোজ স্টার্ট হলে যে প্রোগ্রামগুলো স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু হয় তার একটি তালিকা দেখা যাবে।

picture 2

ধাপ ২। startup এ চালু থাকা সকল প্রোগ্রাম অকার্যকর করুন এবং সেসময় চালু থাকা firewall ও Antivirus সফটওয়্যারগুলো বন্ধ করুন।

picture 3

ধাপ ৩। কম্পিউটার রিস্টার্ট করে পুনরায় run এ গিয়ে msconfig লিখে startup চেক করুন। এখন এখানে সব প্রোগ্রামগুলো বন্ধ থাকা উচিত। যদি সেখানে কোন প্রোগ্রাম স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু থাকে তবে তা অবশ্যই একটি স্পাইওয়ের বা ভাইরাস। নাম ও প্রোগ্রামের লোকেশন নোট করুন। যদি দেখেন সেখানে কিছুই চালু নেই তবে বুঝে নিবেন আপনার কম্পিউটার হয়তো যেকোনো ধরনের স্পাইওয়্যার হুমকি থেকে মুক্ত।

 

ধাপ ৪। উইন্ডোজ স্টার্ট হওয়ার সাথে সাথে যে প্রোগ্রামগুলোকে আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে চালু করতে চান সেগুলোকে এখন পুনরায় চালু করতে পারেন। এখন আপনি কী-লগার ফাইলটির নাম এবং লোকেশন জানেন। আপনি লোকেশনে গিয়ে ম্যানুয়ালি সন্দেহজনক প্রোগ্রাম স্ক্যান বা ডিলিট করতে পারেন।

 

ধাপ ৫। সকল প্রোগ্রাম বন্ধ করে কম্পিউটারটি রিস্টার্ট করুন। এখন আপনার কম্পিউটার যেকোনো ধরনের কী-লগার মুক্ত।

 

নিরাপদ ওয়েব ব্রাউজিং: আপনার ওয়েব ব্রাউজারকে sandboxie  নিরাপত্তায় চালু করার অর্থ হলো ব্রাউজার দ্বারা ডাউনলোড করা যেকোনো ধরনের ক্ষতিকারক সফটওয়্যার sandbox এ ধরা পড়বে এবং সহজে মুছে ফেলা যাবে।

গোপনীয়তা বৃদ্ধি: ওয়েব ব্রাউজিং এর হিস্টোরি, কুকিস এবং টেম্পোরারি ক্যাশে ফাইল sandbox এ থাকে এবং উইন্ডোজে প্রকাশ পায়না।

নিরাপদ ই-মেইল: ভাইরাস ও অন্যান্য ক্ষতিকারক সফটওয়্যার যেগুলো কিনা আপনার ই-মেইল হাইড করে সেগুলো sandbox থেকে ছড়াতে পারেনা এবং রিয়েল সিস্টেমকে আক্রমণ করতে পারেনা।

পরিচ্ছন্ন উইন্ডোজ: একটি আবদ্ধ sandbox এ সফটওয়্যার ইন্সটলের মাধ্যমে wear and tear প্রতিরোধ করে।

 

আপনার মূল্যবান মন্তব্য করতে ভুলবেন না। আমাদের সঙ্গেই থাকুন। সকলকে ধন্যবাদ।

Leave a Reply