আন্ড্রয়েড এম (Android M) কি থাকছে গুগলের এই নতুন আপডেটে

এন্ড্রয়েড এম এর উদ্ভধনি অনুষ্ঠানে ডেভ বার্ক (Google- ইঞ্জিনিয়ারিং এর ভাইস প্রেসিডেন্ট) যা বললেন তাতে মোটামুটিভাবে ছয়টি বৈশিষ্ট আলাদা করে বলা যায় গুগলের এই নতুন এন্ড্রয়েড ভার্সনের। Google I/O 2015 San Fransisco তে এর ডেভেলপার ভার্সনটি প্রদর্শিত হয়েছে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক কি থাকছে নতুন এই এন্ড্রয়েড ভার্সনে।

android-m

এপ্লিকেশন পারমিশন

সাধারনত ললিপপ পর্যন্ত আমরা দেখে আসছি কোন একটি এপ্লিকেশন ইন্সটল করতে গেলে আমাদের বেশ কিছু পারমিশন দিতে হয় ঐ এপ্লিকেশনটিকে। গুগলের নতুন এই এন্ড্রয়েড ভার্সনে এটির আমুল পরিবর্তন আসছে। যে সকল এপ্লিকেশনের ক্যামেরা, মেইল, কম্পাস এবং অন্য পারমিশনের দরকার নাই সেইগুলো যেন অযাচিত ভাবে আপনার মোবাইলের ইনফরমেশন না পায় সেজন্যে এই পারমিশন চাওয়ার প্রক্রিয়ায় আসছে পরিবর্তন।

এন্ড্রয়েড এম থেকে এপ্লিকেশন ইন্সটল করতে কোন পারমিশনের দরকার হবে না। তার বদলে আপনি যখন এপ্লিকেশনটি প্রথমবারের মত চালু করবেন এটি পারমিশন চাইবে তখন। উধাহর সরুপ বলা যায় যদি আপনি হোয়টসএপ ব্যবহারকার করে একটি ভয়েস মেসজ পাঠাতে চান, এটি তখন জানতে চাইবে আপনি এপটিকে আপনার মোবাইলের মাইক ব্যবহার করার অনুমতি দেবেন কিনা।

এই পারমিশনগুলো আপনি চাইলে পরে আপনার সেটিংস থেকে পরিবর্তন করতে পারবেন এবং কোন এপ কি ধরনের পারমিশন ব্যবহার করছে তা দেখতেও পারবেন। মোবাইল ব্যবহারকারীদের কে তাদের আপ্লিকেশনের উপর পুর্ন নিয়ন্ত্রন দিতে এই পরিবর্তনটি আনা হচ্ছে।

ক্রোম কাস্টম ট্যাব

গুগলক্রোমের সবটুকই ব্যবহার কিন্ত আমরা মোবাইলে করতে পারিনা। ক্রোমের টোটাল পাওয়ারের অনেকটুকুই রয়ে যায় অব্যবহৃত। ধরুন কোন একটি এপ্লিকেশন এর ভেতর আপনি একটি লিঙ্কে ক্লিক করলেন, এটি তখন সম্পুর্ন নতুন একটি অ্যাপ না খুলে একটি ভাসমান ক্রোম উইন্ডো খুলবে যেখানে আপনি ইনফর্মেশনটি পড়তে পারবেন এবং আপনার আগের এপ্লিকেশনেও ফিরে যেতে পারবেন। এর ফলে নতুন ক্রোম অ্যাপ খুললে যে পরিমার মেমরি ব্যবহার হত তা আর ব্যবহার হচ্ছে নাহ।

মুলত র‍্যমের ব্যবহার কমিয়ে আনতে এই পরিবর্তনটি আনা হচ্ছে।

ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যানার

অনেক হার্ডওয়ার নির্মাতা এখনই ফিঙ্গারপ্রিন্ট সনাক্ত করতে পারে এমন হার্ডওয়ার তাদের মোবাইল গুলোতে দিয়ে দিয়েছেন। প্লে-স্টোরে কিছু এপ থাকলেও ডেডিকেটেড ভাবে এই ফিঙ্গারপ্রিন্ট স্ক্যনার ব্যবহার হচ্ছে না এন্ড্রয়ডে। এন্ড্রয়েড এম এর এই ভার্সনে থাকছে ফিঙ্গারপ্রিন্টের জন্য পুর্ন সাপোর্ট, যা ব্যবহার করা যাবে ফোন আনলক, প্লে-স্টোর থেকে কিছু কেনা এবং শপিং এর ক্ষেত্রেও।

মোবাইল পেমেন্ট

মোবাইলে পেমেন্টেও আসছে পরিবর্তন। এখন যেমন এন্ড্রয়েড ব্যবহারকারীগন গুগল চেক আউট ব্যবহার করছে তখন ব্যবহার করবে এন্ড্রয়েড পে। এন্ড্রয়েড পে American Express, Visa, Mastercard, and Discover ইত্যাদি কার্ড সাপোর্ট করবে। NFC আছে এবং কিটক্যাট ৪.৪ অথবা তার আপগ্রেডেড ভার্সনের মোবাইলে যাদের তারাই এই নতুন পেমেন্ট সিস্টেম ব্যবহার করতে পারবেন।

android pay

অ্যাপ্লিকেশন পপআপ

এন্ড্রয়েডে যখন আপনি কোন ওয়েব লিঙ্কে ক্লিক করেন তখন এটি বুঝতে পারে না এই লিঙ্কটি তার কি দিয়ে খোলা উচিত। আপনি নিশ্চই দেখেছেন এটি একটি পপ আপ দিয়ে সবসময়ই জানতে চায় (Open with) কোন এপটি আপনি ব্যবহার করতে চান। এন্ড্রয়েড এম থেকে এই ব্যপারটি কমিয়ে আনার চেষ্টা করছে গুগল। এই ভার্শনে আরো সহজেই অপারেটিং সিস্টেম প্রতিবার ব্যবহারকারীকে বিরক্ত না করেই চিনে নিতে পারবে লিঙ্কটি তার কোন এপ্লিকেশন ব্যবহার করে খোলা উচিত।

ব্যটারি এবং চার্জিং

গেইম, ওয়েব ব্রাউজিং এবং মিউজিক বা ভিডিও দেখার পরে মোবাইলে চার্জ দ্রত চলে যায় এটা সর্বজন বিধিত। কিন্তু গুগল এই অবস্থার উন্নয়েনে নতুন পদক্ষেপ নিচ্ছে। স্টান্ডবাই মুডে যেন মোবাইল আগের থেকে কম চার্জ খায় এবং দ্রুত চার্জিং শেষ হ্য় সেজন্য তারা মোবাইল মোশন ডিক্টেটর এর পুর্ন সা্পোর্ট দিচ্ছে। ফেলে ঘু্মিয়ে থাকা অবস্থায় মোবাইলে বেশিরভাগ সার্ভিস অফলাইনে চলে যাবে এবংঅনেক কম পাওয়ার নষ্ট করবে না।

উএসবি টাইপ সি ও সাপোর্ট করবে এই ভার্শনটী। এর ফলে ব্যবহারকারীয়া এক মোবাইল দিয়ে আরেক মোবাইলে চার্জ  আদান প্রদান করতে পারবে।

এই সুবিধা গুলো বাদেও আরো অনেকগুলো নতুন ফিচার হিসেবে অ্যাড হচ্ছে।

০১.  রিমুভকরা যায় / এক্সটার্নাল মেমরি লাগানো যাবে। যদিও গুগল তার ডিভাইস সমুহে এই সুবিধাটি আগে দিত না।

০২. গগল ক্রোমের স্পিড এবং ফ্লেক্সিবিলিটি বাড়ানো হয়েছে।

 

অপারেটিং সিস্টম এন্ড্রয়েড M এর কিছু ছবিঃ-

android-m-pictures-1 android-m-pictures-2 android-m-pictures-3 android-m-pictures-5

Leave a Reply